শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় বিএনপি-জামায়াত : বদিউজ্জামান সোহাগ

শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় বিএনপি-জামায়াত : বদিউজ্জামান সোহাগ

সঞ্জয় কুলু (শরণখোলা ,বাগেরহাট) :
বাগেরহাটের শরণখোলায় নৌকা প্রতীকের প্রথম নির্বাচনী পথসভায় আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ বলেছেন, আগামী ৭জানুয়ারি দেশে একটি ভোট উৎসব হবে। শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় বিএনপি-জামায়াত। আমি বিশ্বাস রাখি তাদের ষড়যন্ত্রের কাছে জাতির পিতার স্বপ্নে সোনার বাংলাদেশ কখনোই পরাজিত হবে না ইনশাআল্লাহ।
বৃহসস্পতিবার (২১ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের তাফালবাড়ী স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে অুনুষ্ঠিত নির্বাচনী এই পথসভায় বদিউজ্জামান সোহাগ বলেন, বঙ্গবুন্ধুর কন্যা জনেনেত্রী শেখ হাসিনা মানবিক, অসাম্প্রদায়িক ও উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী। তার অক্লান্ত পরিশ্রমে দেশ আজ খাদ্যে সয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। প্রত্যন্ত গ্রামের প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছেন। শিক্ষা ও তথ্য-প্রযুক্তির উন্নয়নে দেশ এখন ডিজিটাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশের দোরগোড়ায় রয়েছে। তার ১৫ বছরে দক্ষিণাঞ্চলসহ সারা দেশে যে অভাবনীয় উন্নয়ন হয়েছে। এবারের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয়ের মাধ্যমে জনগণ তার প্রতিদান দেবেন।
বাগেরহাট-৪ আসনের নৌকার প্রার্থী বদিউজ্জামান সোহাগ বলেন, তারেক রহমান লন্ডনে বসে নির্বাচন বাঞ্চালের নীল নকশা আঁকছেন। তার নির্দেশে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসী বাহিনী দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে বাস, ট্রেনসহ শিল্প কলকারখানায় অগ্নিসংযোগ করছে। শত শত নিরিহ মানুষকে পুড়িয়ে মারছে। তারেকের এমন ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ডে বিএনপিতে যারা বিবেকবান ভালো মানুষ আছেন তারাও লজ্জা পান। তারা বলে ১৫ বছরে দেশে কোনো উন্নয়ন হয়নি। কিন্তু শেখ হাসিনার দূরদর্শি নেতৃত্ব আর অকল্পনীয় উন্নয়নে বিশ্ব আজ অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে দেখছে বাংলাদেশকে। বিশ্বনেতৃবৃন্দ ভূয়সী প্রশংসা করছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের।
জনতার উদ্দেশে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে বদিউজ্জামান সোহাগ আরো বলেন, বিএনপি-জামায়েত ক্ষমতায় থাকাকালে এই দেশের কি উন্নয়ন করেছে? আর ১৫ বছরে আওয়ামী লীগ কী করেছে আপনারাই বিচার করুন। তাই কারো মিথ্যাচারে আপনারা কান দেবেন না। ৭ জানুয়ারি দলমত নির্বিশেষে সকল ভেদাভেদ ভুলে এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে সবাই ভোট উৎসবে অংশগ্রহন করবেন বলে আমি বিশ্বাস রাখি।
কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক এই সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ বলেন, আমি দেশ ও জনগণের কল্যাণে রাজনীতি করি। বিগত দিনে কে আমার সঙ্গে ছিল আর কে ছিল না সেটা আমি দেখতে চাই না। সবাই মিলে একসাথে কাজ করব। সেখানে যদি কেউ ঐক্য বিনষ্ট করে, কেউ যদি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে, সে যতই আমার কাছের মানুষ হোক না কেনো তাহলে আমি কিন্তু তার দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নেব। আমরা সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। সবাই আমরা নৌকার লোক। এই নৌকা আমার না, এই নৌকা জননেত্রী শেখ হাসিনার। আমাকে শুধু সেই নৌকা এবং নৌকার কর্মীদের সুরক্ষিত রাখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তাই শেখ হাসিনা এবং আমার ওপর আস্থা রেখে ৭তারিখে সবাইকে ভোট কেন্দ্রে আসার আহ্বান করছি।
সাউথখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু রাজ্জাক আকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নির্বাচনী পথসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আলী আকবর, নির্বাহী সদস্য এম সাইফুল ইসলাম খোকন, শরণখোলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমল হোসেন মুক্তা, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিলন, সহসভাপতি ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক রায়হান উদ্দিন শান্ত, সহসভাপতি ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক মইনুল ইসলাম টিপু, মেজবাহ উদ্দিন খোকন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম কালাম, আওয়ামী লীগ নেতা হাসানুজ্জামান পারভেজ, জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন, শাহজাহান মাতুব্বর, নজরুল ইসলাম আকন, শহিদুল ইসলাম খান, ইমরান হোসেন রাজিব প্রমুখ।

Share This Post

আরও খবর