শরনখোলায় বাওয়ালী নৌকায় আগুন, অনিশ্চিত সুন্দরবনের যাওয়া

শরনখোলায় বাওয়ালী নৌকায় আগুন, অনিশ্চিত সুন্দরবনের যাওয়া

সঞ্জয় কুলু (শরণখোলা বাগেরহাট) :
শরণখোলায় গোলপাতার একটি বাওয়ালী নৌকায় দুর্বৃত্তরা আগুন লাগিয়ে দিয়েছে যে কারণে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তাদের সুন্দরবনে গোলপাতা কাটতে যাওয়া। এ ঘটনায় আনুমানিক তিন লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এতে পরিবারসহ চরম বিপাকে পড়েছেন নৌকা মালিক। ২/৩ দিনের মধ্যে পাস নিয়ে গোলপাতা কাটতে নৌকা নিয়ে সুন্দরবনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবার কথা ছিল। নৌকার মালিক বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার উত্তর তাফালবাড়ি গ্রামের নুরুল হক বেপারীর ছেলে সেলিম বেপারি।
তিনি জানান, আগামীকাল ২৮ জানুয়ারি সুন্দরবনে গোলপাতার পারমিট (পাস) দেয়া শুরু করবে বনবিভাগ। এ লক্ষ্যে সুন্দরবন সন্নিহিত শরণখোলা উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের পূর্ব মাথার ডগইয়ার্ডে তিনি তার আয়ের একমাত্র সম্বল নৌকাটি তুলে দু’লাখ টাকা খরচ করে মেরামত শেষে সুন্দরবনে যাবার যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করেছেন। কিন্তু গতকাল রাতের অন্ধকারে তার পাঁচ লাখ টাকা মূল্যের নৌকায় আগুন লাগিয়ে আংশিক পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। ফলে এখন তার সুন্দরবনে যাত্রা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
তিনি আরো বলেন, তিনি ১২ বছর ধরে সুন্দরবনে গোলপাতার ব্যবসা করে আসছেন। অনেক কষ্ট করে ৫ লাখ টাকায় একটি বাওয়ালী নৌকা তৈরি করেছেন। ৩০ জানুয়ারী সুন্দরবনে রওয়ানা হবার কথা ছিল। এখন যে সময় আছে, সে সময়রে মধ্যে নৌকা পুনরায় প্রস্তুত করে নির্ধারিত তারিখের মধ্যে সুন্দরবনে এবারের সীজন ধরাটা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ফলে, একমাত্র আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেলে পরিবারসহ চরম সমস্যার মুখোমুখী হতে পারে বলে তিনি আশংকা প্রকাশ করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী কাছাকাছি বাঁধ সংলগ্ন বাসিন্দা শাহারু পহলান বলেন, ফজরের আজানের সময় নৌকাটিতে দাউদাউ করে আগুন জ্বলতে দেখে আশপাশের লোকজন নিয়ে পানি দিয়ে আগুন নিভিয়ে দেন। তবে স্থানীয়দের দাবি রাতের অন্ধকার নামলেই রায়েন্দা শহর রক্ষা বাঁধে শুরু হয় মাদকসেবীদের আড্ডা। তখন আড়ালে যেতে তারা খোঁজে পরিত্যক্ত নৌকা বা ট্রলার। তাদের ধারনা সেলিম বেপারির নৌকায় ওই মাদকসেবীদের আগুন থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হতে পারে। বীরমুক্তিযোদ্ধা হেমায়েত উদ্দিন বাদশা বলেন, এখানকার ডগগুলোতে অনেকে বাওয়ালী নৌকা মেরামত করেন। কখনো এমন ঘটনা ঘটেনি।
শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ পেলে অবশ্যই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ######

Share This Post

আরও খবর