মুকসুদপুরে জাল দলিল করে ভাইয়ের সম্পত্তি দখল প্রতারণার মামলায় হাজতবাস

মুকসুদপুরে জাল দলিল করে ভাইয়ের সম্পত্তি দখল প্রতারণার মামলায় হাজতবাস

 মেহের মামুন,(মুকসুদপুর, গোপালগঞ্জ) : :  গোপলগঞ্জের মুকসুদপুরে জাল দলিল করে ভাইয়ের জমি দখল, একই কাগজপত্র দিয়ে রেলওয়ের অধিকগ্রহণকৃত জমি থেকে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎ করেছে একটি অসাধু চক্র। এই ঘটনায় ভুক্তোভোগী ভারত প্রবাসী পরিমল সাহা তার আপন ভাই ভাতিজাসহ ৫জনকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। সি আই ডির তদন্ত প্রতিবেদনে জাল দলিল প্রমানিত হওয়া হাজতবাস করছেন আসামীরা। ঘটনাটি ঘটেছে মুকসুদপুর উপজেলার লখাইরচড় গ্রামে।  দায়েরকৃত মামলায় আসামী প্রান বল্লভ সাহা, প্রদিপ সাহা, সুদিপ সাহা, পলাশ সাহা হাজত বাস করছেন এবং পরেশ চন্দ্র সাহা পলাতক রয়েছেন। প্রান বল্লভ সাহা বয়স্ক হওয়ায় আদালতে তার বিভিন্ন শারিকি সমস্যা দেখিয়ে এবং আত্মসাৎ কৃত জমি এবং টাকা ফেরত দেয়ার কথা বলে আদালত থেকে জামিনে এসে উল্টো ভয়ভীতি এবং মামলার বাদীকে দেশ ত্যাগে বাধ্য করেছেন। পলাতক আসামী পরেশ চন্দ্র সাহা পরিবারসহ পাসপোর্ট করে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের ভিসা লাগিয়ে পালানোর পায়তারা করছে।       মামলার বাদী ভারত প্রবাসী পরিমল সাহা জানান, আমি ভারতে পেশাগত কাজে থাকি। আমার প্রবাসে থাকার সুযোগ কাজে লাগিয়ে আমার আপন ভাই ভাতিজারা আমার প্রায় ৩ শত ৫০ শতক জমি জবর দখল করে আছে এবং প্রায় ১’শ শতক জমি জাল দলিল করে দখল করে আছে। ১ নং লখাইরচর মৌজার ৮০৮ নং খতিয়ানের ২৭৩৪ নং বি আর এস দাগের ৪০ শতাংশ কৃষি জমি যার দলিল নং ৩৩১৮/২০২৬। এই জমিটি জাল দলিল করে নতুন রেল লাইন তৈরির জন্য গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অধিকগ্রহণ করিয়ে প্রায় ৫৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে। আমি আমার পাওনা টাকা এবং জমি চাইলে তারা আমাকে ভয়ভিতী দেখিয়ে দেশ ত্যাগ করতে বাধ্য করেছে। বাংলাদেশ সরকারের কাছে আমার একটাই দাবি আমার ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় আইনি সহায়তা।   এই বিষয়ে প্রান বল্লভ সাহার সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি কোন কথা বলবেননা বলে জানিয়ে দেন।

Share This Post

আরও খবর