প্রচ্ছদ / তথ্যপ্রযুক্তি / প্রযুক্তি এবং তারুন্য

প্রযুক্তি এবং তারুন্য

এহছান খান পাঠান:
তরুণ প্রজন্মের প্রযুক্তি আসক্তি নিয়ে ঘোরতর আপত্তি মুরব্বিদের। ‘এ প্রজন্মকে দিয়ে কিচ্ছু হবে না। সব নষ্ট হয়ে গেছে।’ বাবা, চাচা বা মুরব্বিদের মুখে বর্তমান প্রজন্ম সম্পর্কে এমন মন্তব্য অহরহ শোনা যায়। যেমন, একজন তরুণ ইউটিউবারের সকল কর্মকাণ্ডকে তাঁরা অপচয়ের দৃষ্টিতে দেখছেন।
তবে হ্যাঁ, বর্তমান তারুণ্য যে শতভাগ সঠিক পথে হাঁটছে এমনও নয়। একটা অংশ প্রযুক্তির অপব্যবহারে জড়িয়ে পড়েছে। যার ক্ষতিকর প্রভাব বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ভোগ করতে হবে।
আর এ থেকে উত্তরণে প্রয়োজন মানসিকতার পরিবর্তন। একটা বড় ধরণের বিপ্লব ঘটানোর জন্য দরকার মানবিকতা, নৈতিকতা, অনুভূতি। তবে মানসিকতার পরিবর্তন অল্পদিনে সম্ভব নয়। অপেক্ষা করতে হবে। আশাবাদী হতে হবে।
জন্মের পর থেকে অন্ধকার গুহায় আটকে রাখা একটা মানুষকে বিশ বছর বয়সে হঠাৎ একদিন দিনের আলোতে ছেড়ে দিলে তার অবস্থা কী হতে পারে? নিশ্চয় অপ্রত্যাশিত আলোর ঝলকানিতে সে দিকবিদিক জ্ঞানশূন্য হয়ে পাগলপ্রায় হয়ে উঠবে। কিন্তু সময়ের সাথে অবশ্যই সে সবকিছু মানিয়ে নেবে।
ঠিক তেমনি প্রযুক্তির সান্নিধ্য বর্তমান প্রজন্মের কাছে গুহা থেকে হঠাৎ পৃথিবীর আলোতে আগমন। সঠিক জ্ঞান ও চিন্তাধারার অভাবেই কিছু তরুণ আজ পথভ্রষ্ট। তবে সময়ের সাথে সাথে তাদের সঠিক বোধ উপলব্ধি হবেই।
তাহলে মুরব্বিরা মুখে কুলুপ আটবেন? মোটেই তেমন নয়। তাঁদের প্রতিটি সমালোচনা তরুণ প্রজন্মের জন্য একেকটা ধাক্কা। আর এই ধাক্কাই তাদেরকে পৌচ্ছে দেবে সঠিক গন্তব্যে। অভিজ্ঞ মুরব্বিরা নেতিবাচকতা তুলে ধরার সাথে সাথে একটা ইতিবাচক পথও বাতলে দেবেন। এতে তরুণদের হাঁটতে সুবিধা হবে।

(এহছান খান পাঠান, বার্তা সম্পাদক, দৈনিক অর্থনীতির কাগজ)

About arthonitee

Check Also

গ্রাফিক্স ডিজাইনে ক্যারিয়ার

সময়ের স্মার্ট পেশা গ্রাফিক্স ডিজাইনার। অন্যান্য সব চাকরির চেয়ে গ্রাফিক্স ডিজাইন পেশাটি সবচেয়ে নিরাপদ ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *