প্রচ্ছদ / Uncategorized / ঐক্যফ্রন্টকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমন্ত্রণ প্রধানমন্ত্রীর

ঐক্যফ্রন্টকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমন্ত্রণ প্রধানমন্ত্রীর

সংলাপের আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেনের চিঠির জবাব দিয়েছে আওয়ামী লীগ। চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে ১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় গণভবনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সংলাপের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ।

সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকাল ৭টা ৫৫ মিনিটের দিকে ড.কামাল হোসেনের বেইলী রোডের বাসায় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে চিঠি নিয়ে যান আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ।

আবদুস সোবহান গোলাপ বলেন, ‘২৮ অক্টোবর জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত একটি চিঠি প্রধানমন্ত্রী বরাবর পাঠানো হয়। আমি তা অফিসিয়ালি গ্রহণ করি। সেই চিঠির জন্য প্রধানমন্ত্রী ধন্যবাদ দিয়েছেন এবং তারই আলোকে একটি অফিসিয়াল বক্তব্য আমার মাধ্যমে ড. কামাল হোসেনের কাছে পাঠিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘অনেক সংগ্রাম ও ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে সংবিধানসম্মত সকল বিষয় আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দরজা সর্বদা উন্মুক্ত। তাই ওনারা আলোচনার জন্য যে সময় চেয়েছেন, তারই পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ১ নভেম্বর সন্ধ্যা সাতটায় গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই আমন্ত্রণ পত্রটি আমি সরাসরি ড. কামাল হোসেন সাহেবের হাতে তুলে দিয়েছি।’

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু বলেন, ‘আমরা ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে সংলাপের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে একটি চিঠি দিয়েছিলাম। তারপর ওনারা জানিয়ে দিয়েছিলেন খুব তাড়াতাড়ি বসবেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা কয়জন যাচ্ছি, কে কে যাচ্ছি-সেই তালিকা ওনারা জানতে চেয়েছেন। আমরা আজকেই তালিকাটা দিয়ে দেব। ওনারা আমাদের ১ নভেম্বর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা শুধু সাতদফা না; সাত দফাসহ অন্যান্য বিষয় এবং বর্তমান যে ইস্যূগুলো আছে-সবগুলো নিয়ে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনী প্রেক্ষাপট তৈরি করার জন্য ওনাকে (প্রধানমন্ত্রী) অনুরোধ করব। এর জন্য উনি যদি আমাদের কাছে কোনো সাহায্য-সহযোগিতা চান, তা অবশ্যই আমরা করব।’

মোস্তফা মহসীন মন্টু বলেন, ‘ড. কামাল হোসেন সাহেব যেহেতু সংবিধান প্রণেতাদের অন্যতম, তাই তিনি বিস্তারিত ব্যাখ্যাটা দিতে পারবেন। বিষয়টা আমরা ওনার ওপরে ছেড়ে দিচ্ছি। তিনি আমাদের নেতৃত্ব দিবেন।’

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যেহেতু রাষ্ট্রীয় দায়িত্বে আছেন। আমরা ওনার কাছে জাতিকে এ সংকট থেকে রক্ষা করার জন্য আবেদন করব।’ এ সময় প্রতিনিধিদলের সদস্য সংখ্যা ১৫ জনের কমবেশি হতে পারে বলে জানান তিনি।

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু প্রধানমন্ত্রীর দেয়া চিঠিটি সাংবাদিকদের পড়ে শোনান।

About arthonitee

Check Also

পল্টনে সংঘর্ষ ও পুলিশের গাড়ি পোড়ানোয় তিন মামলা, গ্রেফতার ৩৪

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি সমর্থকদের সংঘর্ষ ও গাড়ি পোড়ানোর ঘটনায় পল্টন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *