প্রচ্ছদ / প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর / কালকিনিতে মামলা তুলে নেয়ার জন্য বাদীকে হুমকি

কালকিনিতে মামলা তুলে নেয়ার জন্য বাদীকে হুমকি

এসএম আরাফাত হাসান:
জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মাদারীপুরের কালকিনিতে শামীম মোল্লা(২২) ও শাহিন মোল্লা(১৮) নামের দুই ভাইকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। আর ঘটনায় ভুক্তভোগীদের বাবা মোঃ আলাউদ্দিন মোল্লা বাদী হয়ে কোর্টে একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আসামীপক্ষরা ওই মামলা উত্তোলন করে নেয়ার জন্য হুমকি প্রদর্শন করে আসছে। এতে করে ভুক্তভোগীর পরিবারের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ দিকে হুমকির ঘটনায় বাদী পক্ষ থেকে আজ শুক্রবার সকালে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মামলা ও ভুক্তভোগীর অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার বালীগ্রাম এলাকার পান্তাপাড়া গ্রামের মোঃ আলাউদ্দিনের সাথে একই গ্রামের হেল্লাল মোল্লার দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে দ্বন্ধ চলে আসছে। এর জের ধরে গত শনিবার বিকালে নেছারউদ্দিনের নেতৃত্বে হেল্লা মোল্লা ও রফিকুল মোল্লাসহ বেশ কয়েকজন মিলে আলাউদ্দিনের দুই ছেলে শামীম মোল্লা ও শাহিন মোল্লাকে একা পেয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে তাদেরকে আহত অবস্থায় কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ভর্তি করা হয়। এ হামলার ঘটনায় আহতদের পিতা আলাউদ্দিন মোল্লা বাদী হয়ে মাদারীপুর কোর্টে হেল্লাল মোল্লা, রফিকুল ও নেছারউদ্দিনসহ ৮জনের বিরিুদ্ধে একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করেন। এ মামলা করায় ক্ষিপ্ত হয়ে আসামী পক্ষরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য অব্যাহত হুমকি প্রদর্শন করে আসছে বলে জানযায়। তাদের হুমকির ঘটনায় বাদীপক্ষ বর্তমানে ভয়ে এলাকা ছেড়ে গা ঢাকা দিয়ে রয়েছেন বলে ভুক্তভোগী পরিবার জানায়। এর আগেও ওই আসামীরা কয়েকদফা হামলা চালিয়ে ভুক্তভোগীর বাড়ি ঘড় ভাংচুর করে বলে জানাযায়।

মামলা বাদী আলাউদ্দিন বলেন, আমি হত্যা চেষ্টা মামলা করে চরম বিপাকে পড়েছি। কারন আসামী হেল্লাল মোলাসহ সবাই মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমিক দিয়ে আসছে আমাকে। তাই আমি নিরুপায় হয়ে ভয়ে অন্য এলাকায় আশ্রায় নিয়েছি।

অভিযুক্ত হেল্লাল মোল্লার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে ডাসার থানার ওসি এমদাদুল হক বলেন, যদি হুমকি দিয়ে থাকে তাহলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About arthonitee

Check Also

গেলেন ফুফুর লাশ আনতে, ফিরলেন নিজেই লাশ হয়ে

মহিপুরের এক ব্যবসায়ী পটুয়াখালী থেকে ফুফুর লাশ আনতে গিয়ে নিজেই লাশ হয়ে ফিরেছেন। লাশবাহী গাড়ির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *